You are currently viewing শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের জীবনী ও লাইফস্টাইল
শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের জীবনী ও লাইফস্টাইল

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় একজন কলকাতা ফিল্ম ইন্ডাষ্ট্রির সফল ও জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তার ক্যারিয়ার শুরু হয় শিশু শিল্পি হিসেবে। তার ক্যারিয়ার ও ব্যক্তিগত জীবনে অনেক উস্থান ও পতনের মধ্য দিয়ে গেছে। আজকে আমরা জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী মুখার্জীর সিনেমা ক্যারিয়ার, ব্যক্তিগত ও পারিবারিক বিষয়ে বিস্তারিত জানব। প্রিয় পাঠক আপনার যদি নায়িকা শ্রাবন্তী সম্পর্কে বিস্তারিত জানার আগ্রহ থাকে, তাহলে আমাদের সম্পর্ণ লেখাটি পড়ুন।

এক নজরে শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়

মূলনামঃ শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়

ডাকনামঃ শ্রাবন্তী

জন্মঃ ১৩ই আগস্ট, ১৯৮৭

জন্মস্থানঃ কলকাতা, ভারত

লিঙ্গঃ নারী

ভাষাঃ বাংলা, হিন্দি

পেশাঃ অভিনেত্রী, মডেল, রাজনীতিবীদ

ধর্মঃ সনাতন

জাতীয়তাঃ ভারতীয়

শিক্ষাঃ স্নাতক

বৈবাহিক অবস্থাঃ বিবাহিত

প্রথম স্বামীঃ রাজীব কুমার বিশ্বাস

প্রথম বিয়েঃ ২০০৩

প্রথম বিচ্ছেদঃ ২০১৬

দ্বিতীয় স্বামীঃ কৃষাণ বিরাজ

দ্বীতিয় বিয়েঃ ২০১৬

দ্বীতীয় বিচ্ছেদঃ ২০১৭

তৃতীয় স্বামীঃ রোশন সিং

তৃতীয় বিয়েঃ ২০১৯

চলচ্চিত্রে অভিষেকঃ ১৯৯৭

সন্তানঃ ১

ছেলের নামঃ ঝিনুক

বোনের নামঃ সামিটা চট্টোপাধ্যায়

প্রথম চলচ্চিত্রঃ মায়ার বাঁধন

শখঃ ভ্রমণ

প্রিয় অভিনেতাঃ আমির খান, সালমান খান

প্রিয় অভিনেত্রীঃ মাধুরী ডিক্সিট

প্রিয় গায়কঃ মান্না দে, লতা মঙ্গেসকার

প্রিয় কালারঃ রেড, হোয়াইট

প্রিয় খেলেঃ ক্রিকেট

প্রিয় ঘুরার জায়গাঃ ডোবাই

প্রিয় খাবারঃ মিষ্টি দই

উচ্চতাঃ ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি

ফিগারঃ ৩৩-৩১-৩৪

হিপঃ ৩৬

চুখের কালারঃ কাল

শরীরের কালারঃ ফর্শা

চুলের কালারঃ ডার্ক ব্রাউন

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এর প্রাথমিক জীবনী

 ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রের গুণী অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ১৩ই আগস্ট ১৯৮৭ সালে কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন। শ্রাবন্তীর শৈশব ও কৌশর কেটেছে কলকাতাতেই। তিনি কলকাতাতে পড়াশোনা করেন। ছোটবেলাতেই তিনি খুব সুন্দরি ছিলেন। তার অল্প বয়স থেকে তার জন্য বিয়ের প্রস্তাব আসতে থাকে। শ্রাবন্তীর প্রথম বিয়ে হয় যখন তার বয়স ১৬ বছর।

শ্রাবন্তীর প্রথম বিয়ে হয় চলচ্চিত্র পরিচালক রাজীব কুমার বিশ্বাস। রাজীব কুমার বিশ্বাস ও শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এর সংসারে একটি পুত্র সন্তান আছে। তাদের পুত্র সন্তানের নাম ঝিনুক। ২০১৬ তাদের রাজিবের সাথে শ্রাবন্তীর বিচ্ছেদ হলে শ্রাবন্তি বিয়ে করেন কৃষাণ বিরাজকে। তাদের সংসার ও বেশি দিন টিকে নাই ২০১৭ সালে তাদের বিচ্চেদ হয়। শ্রাবন্তী ভালবেসে ২০১৯ সালে বিয়ে করেন রোশন সিং কে, এটি শ্রাবন্তীরে তৃতীয় বিয়ে।

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এর রাজনৈতিক জীবন

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় রাজনীতিক মাঠে খুব একটি সরব না। তবে তিনি ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ভারতের রাজনীতিক দল বিজেপির হয়ে নির্বাচন করেছিলেন। বেহালা পশ্চিম আসনে শ্রাবন্তীর বিপক্ষে নির্বাচন করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সে বিধানসভা নির্বাচনে শ্রাবন্তী তার বিপক্ষ পার্থি পার্থের কাছে প্রায় ৫১ হাজার ভোটের ব্যাবধানে হেরে যায়। তার পর থেকে তাকে আর বিজেপির কোন রাজনৈতিক প্রোগ্রামে দেখা যায় নি।

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এর সিনেমা ক্যারিয়ার

কলকাতা চলচ্চিত্রের সফল অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ১৯৯৭ সালে মায়ার বাঁধন এর মাধ্যমে মিডিয়া কাজ শুরু করেন একজন শিশু শিল্পি হিসেবে। ২০০৩ সালে তিনি সুপারস্টার নায়ক জিতের সাথে চ্যাম্পিয়ান সিনেমায় কাজ করেন। তার পর তিনি একে একে অনেক সুপারহিট অভিনেতার সাথে অভিনয় করেন। তিনি জিৎ, শাকিব খান, দেব, সোহম, তাহসান রহমান খান, অংকুশ, হিরন, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, আবীর চট্টোপাধ্যায়, রুদ্রনীল ঘোষ, যিশু সেনগুপ্তর মত অভিনেতাদের সাথে একসাথে কাজ করেছেন।

তাছাড়া তিনি তার ক্যারিয়ারে কলকাতার প্রথম সারির পরিচালকদের সাথে কাজ করেছেন যেমন স্বপন সাহা, রবি কিনাগী, রাজিব বিশ্বাস, সুজিত মন্ডল, সৌমিক চট্টোপাধ্যায়, রাজ চক্রবর্তী, অপর্ণা সেন, বিরসা দাশগুপ্ত, জয়দেব মুখোপাধ্যায়, জাকির হোসেন সিমান্ত, পল্লব গুপ্ত, রাজর্ষি দে, ওভিমনু মুখারজী , রানা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ, হরনাথ চক্রবরতী, ত্রিদিব রমন ইত্যাদি

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এর উল্লেখযোগ্য সিনেমা

১। মায়ার বাঁধন চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন স্বপন সাহা ১৯৯৭ সালে
২। চ্যাম্পিয়ন চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রবি কিনাগী ২০০৩ সালে
৩। ভালবাসা ভালবাসা চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রবি কিনাগী ২০০৮ সালে
৪। দুজনে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রাজিব বিশ্বাস ২০০৯ সালে
৫। ওয়ান্টেড চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রবি কিনাগী ২০১০ সালে

৬। জোশ চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রবি কিনাগী ২০১০ সালে
৭। সেদিন দেখা হয়েছিল চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন সুজিত মন্ডল ২০১০ সালে
৮। ফাইটার চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রবি কিনাগী ২০১১ সালে
৯। ফান্দে পড়িয়া বগা কান্দে রে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন সৌমিক চট্টোপাধ্যায় ২০১১ সালে
১০। ইডিয়ট চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রাজিব বিশ্বাস ২০১২ সালে

১১। দিওয়ানা চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রবি কিনাগী ২০১৩ সালে
১২। কানামাছি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রাজ চক্রবর্তী ২০১৩ সালে
১৩। গয়নার বাক্স চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন অপর্ণা সেন ২০১৩ সালে
১৪। মজনু চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রাজিব বিশ্বাস ২০১৩ সালে
১৫। বিন্দাস চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রাজিব বিশ্বাস ২০১৪ সালে

১৫। বুনো হাঁস চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন অনিরুদ্ধ রায় চট্টোপাধ্যায় ২০১৪ সালে
১৬। কাটমুন্ডু চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রাজ চক্রবর্তী ২০১৫ সালে
১৭। শুধু তোমারই জন্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন বিরসা দাশগুপ্ত ২০১৫ সালে
১৮। শিকারী চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন জয়দেব মুখোপাধ্যায় ও জাকির হোসেন সিমান্ত ২০১৬ সালে
১৯। শেষ সংবাদ চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন পল্লব গুপ্ত ২০১৬ সালে
২০। বীরপুরুষ চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রাজর্ষি দে ২০১৭ সালে

২১। জিও পাগলা চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রবি কিনাগী ২০১৭ সালে
২২। প্রিয়া রে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন ওভিমনু মুখারজী ২০১৮ সালে
২৩। উমা চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন সৃজিত মুখোপাধ্যায় ২০১৮ সালে
২৪। বাঘ বন্দি খেলা চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন শুজিত মন্ডল,হরনাথ চক্রবরতী,রাজা চন্দ্র ২০১৮ সালে
২৫। ভাইজান এলো রে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন জয়দীপ মুখারজি ২০১৮ সালে

২৬। গুগলি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন অভিমন্যু মুখোপাধ্যায় ২০১৮ সালে
২৭। দৃশ্যান্তর চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন রানা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৮ সালে
২৮। যদি একদিনর চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ ২০১৯ সালে
২৯। ভূত চক্র পাইভেট লিঃ চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন হরনাথ চক্রবরতী ২০১৯ সালে
৩০। হুল্লোড় চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন অভিমন্যু মুখোপাধ্যায় ২০১৯ সালে

৩১। নবজীবন বীমা কোম্পানী চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন স্বরূপ ঘোষ ২০১৯ সালে
৩২। ঊরান কোম্পানী চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন ত্রিদিব রমন ২০১৯ সালে
৩৩। টেকো কোম্পানী চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন অভিমন্যু মুখোপাধ্যায় ২০১৯ সালে

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এর সম্মাননা বা পুরস্কার

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এর সোসাল মিডিয়া প্রোফাইল

ফেইবুক

টুইটার

ইনস্টাগ্রাম